শেষ দশকের বেস্ট মিউজিক্যাল ড্রামা ফিল্ম ফর বলিউড
মুভি রিভিউ

শেষ দশকের বেস্ট মিউজিক্যাল ড্রামা ফিল্ম ফর বলিউড

একজন কিংবদন্তী গায়কের পতন এবং আরেকজনের উত্থান। টাইটেলটা একটু স্পয়লার হতে পারে। কিন্তু যেহেতু এই ফিল্ম প্রায় বেশিরভাগেরই দেখা তাও গুটিকয়েক আশা করি খুব বেশি স্পয়লার পাবেন না। মহিত সুরির ডিরেকশনে আদিত্য এবং শ্রদ্ধা কাপুর অভিনীত মিউজিক্যাল ড্রামা ফিল্ম। ১৩ এর অন্যতম আলোচিত ফিল্ম তো বটেই মিউজিকের জন্যে এ ফিল্ম বলিউডের ইতিহাসেই নাম লিখিয়ে নিয়েছে।

শেষ দশকের বেস্ট মিউজিক্যাল ড্রামা ফিল্ম ফর বলিউড।

কাহিনী সংক্ষেপ: বিখ্যাত গায়ক রাহুল। তবে যার কিনা খুব মদ্যপানের স্বভাব এবং আচরণ জুড়ে উগ্রভাব। তবে রাহুলকে বেশ বদলে দেয় আরোহি নামক এক মেয়ে যে কিনা গায়িকা হবার স্বপ্ন দেখে। ধীরে ধীরে দু’জনেই বন্ধনে জড়ায়। রাহুল হেল্প করতে থাকে আরোহিকে কিন্তু এদিকে নিজে পতিত হতে থাকে অন্ধকারে।

Aashiqui 2 (2013)
Imdb: 7/10

ট্র‍্যাজেটিক ফিল্ম। অভিনয়, ডিরেকশন সব দিক দিয়েই বেশ ভালো কিন্তু সবচেয়ে আলোচনার বস্তু মিউজিক। জিত গাঙ্গুলি কলকাতা থেকে একেবারে বাজিমাত করে দিয়েছেন এ ফিল্মে। দারুণ এক মিউজিক ডিরেক্টর মিথুন। কিংবদন্তীতুল্য তুম হি হো যার হাত ধরেই আসে। এছাড়াও আঙ্কিত তিওয়ারি বা কেকে, পলক মুচ্ছল এরাও কিছুটা ভূমিকা রাখে।

তবে এবার আসি অন্য একজনেঃ আপনার কি মনে হয়? আশিকি ২ এর সাফল্যে সবচেয়ে বেশি ভূমিকা কার? এক্টর? এক্ট্রেস? ডিরেক্টর? কিন্তু আমার কাছে এদের কাউকেই মনে হয়না। বরং আমার উত্তর অরিজিৎ সিং।

“Tum Hi Ho”
“Milne hai mujhse aayi”
“Chahu main yaana”
“Hum mar jayenge”

অরিজিৎ নামক লিজেন্ড

স্পেলিং মিস্টেক হতে পারে। কিন্তু এটা অস্বীকার করবার উপায় নেই যে এই গানগুলোই ছিলো এ ফিল্মের আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দু। একজন অরিজিৎ নামক লিজেন্ডকে শ্রোতারা গ্রহণ করে নতুন ভাবে। মিথুন এবং ইরফানের সাথে মিলে ফির মোহাব্বত ও এ ভিত গড়ে দিতে পারেনি। সবার প্রিয় মুর্শিদাবাদের এ গায়ককে আর পিছনে তাকাতে হয়নি।

আরো পড়ুন,

মাস্টার মুভি নিয়ে অনেকে অনেক কিছু বলছেন।

সময়ের অভাবে আর দেখা হয়ে উঠেনি

আজ রিভিউ এর প্রথমই আলাদা ভাবে বলব মালায়ালম ফিল্মের কথা।

প্রতিহিংসার নেশায় মানুষ অন্ধ হয়ে যায়

ড্রামার কাহিনিটা মুমিন ও মুমিনার জীবন কাহিনী নিয়ে।

প্রায় বেশিরভাগ আলোচিত ফিল্মেই এখন তার গান থাকেই। বেশিরভাগ ফিল্মফেয়ারেই তার জয়জয়কার। গড়ে নিয়েছেন অসংখ্য ভক্ত। এমনকি এই লেখার পিছনের মূল কারণ এর আগে তুম হি হো শুনে নস্টালজিক হয়ে গিয়েছিলাম।  কিছুটা স্পয়লারযুক্ত বাক্যটি কি তবে সঠিক? “একজন গায়কের অবসান এবং আরেকজনের উত্থান?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *